Home » উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় ও কমানোর উপায় কি?
উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় ও কমানোর উপায় কি

উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় ও কমানোর উপায় কি?

by Dr. ABM Khan
0 comment 143 views

উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় ও কমানোর উপায়: উচ্চ রক্তচাপ আপনাকে মেরে ফেলতে পারে। এটিকে গুপ্ত ঘাতক নামে আখ্যায়িত করা হয়েছে কারণ এটি কোন রকম লক্ষণ না দেখিয়ে বছরের পর বছর দেহের মেধ্য সংগোপনে থাকে । স্বাভাবিক রক্তচাপ সম্পন্ন এক ব্যক্তির চেয়ে উচ্চ রক্তচাপ বিশিষ্ট ব্যক্তির হার্ট এ্যাটাকের সম্ভাবনা তিনগুণ বেশী এবং স্ট্রোক হবার সম্ভাবনা আট গুণ বেশী। উচ্চ রক্তচাপ চল্লিশ ঊর্ধ্ব লোকের বেশী দেখা যায় এবং এটি প্রাচ্যের বড় বড় শহরে অত্যন্ত উদ্বেগ জনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আপনার চিকিৎসক যখন আপনাকে রক্ত চাপের ফলাফল প্রদান করেন তখন তিনি দু’টি সংখ্যা যেমন ১২০/৮০ দিয়ে থাকেন। স্বাভাবিক রক্তচাপের মাত্রা ১৪০/৯০ এর চেয়ে বেশী হওয়া উচিত নয়। সুতরাং রক্তচাপের পরিমাপ ১৬০/৯৫ কে উচ্চ রক্তচাপ মাপ বা হাইপার টেনশন ধরে নেয়া হয়। একবার রক্তচাপ পরীক্ষা করেই কারো প্রকৃত রক্তচাপ নির্ভুল ভাবে পাওয়া যায় না। তাই আপনাকে দু’থেকে তিন বার চিকিৎসকের কাছে রক্তচাপ পরীক্ষা করার জন্য যেতে হতে পারে। এর কারণ হচ্ছে আপনার মানসিক অবস্থা আপনার রক্ত চাপকে প্রভাবিত করতে পারে।

আরও পড়ুন:

চর্বির কাজ কি? অতিরিক্ত চর্বি আমাদের কি কি ক্ষতি করে?

উচ্চ রক্তচাপ কেন হয়

উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় ? কি কারণেই বা উচ্চ রক্তচাপ হয় ? এ রোগের প্রায় দশ শতাংশ হয় বৃক্ক বা কিডনি না হয় এ্যাড্রেনাল রোগ থেকে উৎপত্তি লাভ করে। তবে বাকী ৯০ শতাংশের জন্য নিশ্চিত ভাবে জ্ঞাত কোন কারণ নেই। তথাপি দুটি উপাদান রয়েছে যা উচ্চ রক্তচাপ সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখতে পারে।

১। কিছু কিছু লোক অন্যদের তুলনায় সেবনের উপরে সুবেদি বা অতি প্রতিক্রিয়াশীল। এমনকি লবনে যে সোডিয়াম থাকে তা তাদের জন্য উচ্চ রক্ত চাপের প্রধান কারণ হতে পারে। যে সব জাতির একজন লোক দিনে ০.৫ গ্রাম লবণ সেবন করে, যেমন এস্কিমো, নিউগিনির লোকজন শলোমন দ্বীপপুঞ্জের অধিবাসী এবং অস্ট্রেলিয়ার আদিবাসীগণ এদের মধ্যে উচ্চ রক্ত চাপের সংখ্যা শূন্য। অবশ্য শলোমন দ্বীপের লাউ গোত্রের লোকদের স্বাভাবিকের চেয়ে বেশী রক্তচাপ, কারণ তারা সমুদ্রের জল দিয়ে সব্জি সিদ্ধ করে খায়। তাই গড়ে একজন লোক দিনে প্রায় ২০ গ্রাম লবণ সেবন করে।

উত্তর জাপানের কৃষকগণ তাদের খাবার লবণ সংরক্ষণ করে এবং গড়ে একজন লোক দিনে ৩০ গ্রাম লবণ সেবন করে। এখানের শতকরা ৬০ ভাগ লোকের উচ্চরক্ত চাপ রয়েছে এবং স্ট্রোক সেখানে মৃত্যুর একটি প্রধান কারণ।

এর অর্থ এই নয় যে, খাদ্য থেকে লবণ সম্পূর্ণ রূপে বাতিল করতে হবে। লবণ দেহের একটি মৌলিক চাহিদা তবে দিনে আমাদের দেহের মাত্র ০.২ গ্রাম সোডিয়াম প্রয়োজন। তাই আমরা যদি আমাদের লবণ সেবনের মাত্রা দিনে এক চামচ এ কমিয়ে আনতে পারতাম তাহলে আমাদের স্বাস্থ্যের একটি বিরাট সমস্যার সমাধান এমনিতেই হয়ে যেত। (রান্না এবং খাবার টেবিলে ব্যবহৃত সব সমেত এক চামচ লবণ দিনে প্রয়োজন) । তবে যাদের ইতিমধ্যে উচ্চ রক্তচাপ হয়ে গেছে তাদের লবণ সেবনের মাত্রা আরো কমাতে হবে ।

২। এ্যাথেরোসক্লেরোসিস্ (ধমনীর মধ্যে কোরেষ্টেরল প্রলেপ যা ধমনীকে সংকীর্ণ করে) উচ্চ রক্তচাপের আর একটি কারণ বলে বিবেচিত। এটি যদি সত্য হয় তা হলে মেদ চর্বি ও কোলেষ্টেরল যুক্ত খাদ্য পরিহার করলে আমরা উপকৃত হব।

৩। মেদস্বীতা উচ্চরক্ত চাপের আর একটি কারণ হতে পারে দেহে প্রতি বাড়তি পাউন্ড চর্বির জন্য অতিরিক্ত হাজার হাজার শিরা ও ধমনীর প্রয়োজন। এই বাড়তি শিরা ধমনীর মধ্যে দিয়ে রক্ত প্রবাহ করতে হলে আরো বেশী চাপ বা ফোর্সের প্রয়োজন হয় তাহলে এখানে বিস্ময়ের কিছু রয়েছে কি যে মেদম্বী লোকরা অন্যান্যদের তুলনায় পাঁচ গুণ বেশী উচ্চরক্ত চাপের সম্ভাবনার সম্মুখীন যে কোন ব্যক্তি তার দেহের গঠন এবং উচ্চতা তার থেকে ২০ শতাংশ বেশী হলেই তাকে মেদম্বী হিসেবে গণ্য করা হয়।

৪ । জন্ম নিয়ন্ত্রণ বড়ির মধ্যে এ্যাট্রোজেন (Estrogen) নামক একটি স্ত্রী হরমোন থাকে এটি বিগত যৌবনা (Menopause) মহিলাদেরও দেয়া হয়। এ হরমনটি দেহে লবণ ধরে রাখার একটি প্রক্রিয়া সংঘটিত করে বিধায় অতিমাত্রায় লবণ সেবনের অনুরূপ ফলাফল দেহে দেখা যায় এই হরমোন সেবন করলে।

৫। ইদানিং সন্দেহ করা হচ্ছে যে কিডনি বিকলতা সম্পন্ন লোকেরা যদি বহুদিন যাবৎ অতিমাত্রায় পরিশোধিত চিনি ব্যবহার করতে থাকে তবে এর ফলে উচ্চ রক্তচাপ সৃষ্ট হতে পারে। (এখানে বলা বাহুল্য যে কিডনি বিকলতা বয়সের সাথে সাথে হতে পারে।)

৬। ভুলে গেলে চলবে না যে চাপ উচ্চ রক্ত চাপের একটি কারণ। সে কাজের চাপ; আর সামাজিক চাপ, শব্দের চাপ যাই হোক না কেন, প্রতিটি চাপই রক্ত চাপের উচ্চতা বৃদ্ধি করে।

খাদ্য সংশ্লিষ্টতা

আপনি কি লক্ষ্য করেছেন যে উচ্চরক্ত চাপের উপাদানের মধ্যে পাঁচটিই খাদ্য সংক্রান্ত। যারা খাদ্য অবিবেচক তারা চামচ এবং কাটা চামচ দিয়ে আত্মহত্যা করছে। অধিকাংশ খাদ্যাভ্যাসই বালক বয়সে আমাদের মধ্যে সৃষ্টি হয় এবং বয়ঃবৃদ্ধ হলে তা পরিবর্তন করা দুঃসাধ্য হয়। এটা কতইনা ফলপ্রসূ হবে যদি মাতা পিতাগণ বাল্যকাল থেকেই বাচ্চাদের চিনি, লবণ এবং ভাজি করা খাদ্যের পরিমিত ব্যবহার শিক্ষা দিতে পারেন। যদিও বাজারে ইদানিং উচ্চ রক্তচাপ রোধী ওষুধ পাওয়া যায় তথাপি ওষুধ অপেক্ষা নিরাপদ পন্থা রয়েছে যার মাধ্যমে আমরা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করতে পারি।

উচ্চ রক্তচাপ কমানোর উপায়

উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় সে বিষয়ে অবগত থাকলে উচ্চ রক্তচাপ কমানো বা নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হয়। আপনার খাদ্য চর্বি সেবন সীমিত করে উচ্চ রক্তচাপের দুটি উপাদান যার একটি এ্যাথেরোস্ক্লেরোসিস্ এবং অপরটি মেদস্বীতা থেকে আপনি মুক্ত হতে পারেন। প্রাত্যহিক ব্যয়ামের অভ্যাসও একটি উপকারী পন্থা ।

একটি সমস্যা হচ্ছে লবণ সেবন হ্রাস করা, কারণ প্রচুর পরিমাণে লবণ লুকায়িত অবস্থায় দেহে প্রবেশ করে। কিছু কিছু লবণ যুক্ত খাদ্য অবশ্য সহজে ধরা পড়ে যেমন, চিপস্, ভুট্টার খই, এবং লবনে ভাজা বাদাম ইত্যাদি। কিন্তু অনেক প্রক্রিয়াজাত খাদ্য যেমন পুডিং, কেক, বেকন, ক্রেকারস, ব্রেড, সসে, টুনা ফিস, টিনজাত টমেটো সুপ, চিকেন ফ্রাই, কেচাপ, সয়াসস্, লবণ সংরক্ষিত খাদ্য এবং বিভিন্ন আচার ইত্যাদিতে কি পরিমাণ লুকায়িত লবণ রয়েছে তা কে জানে? এই অতিমাত্রায় লবণ সমৃদ্ধ খাদ্যের তালিকা মনে হয় শেষ হয় না । প্রত্যেকের প্রক্রিয়াজাত খাদ্য সেবনের পূর্বে তার উপাদান পড়ে দেখার অভ্যাস করা উচিত । যুক্তরাষ্ট্রের উপরে তার উপাদান এবং লবণের পরিমাণ সমন্বিত একটি ছক্ থাকে ।

স্বাদ ঘ্রাণে সমৃদ্ধ করার জন্য প্রাচ্যের অনেক দেশে টেষ্টিং সল্ট ব্যবহার করা হয়। হোটেল রেস্তোরাঁয় এর ব্যবহার অত্যন্ত বেশী এবং এর অর্থ হচ্ছে আরো বেশী সোডিয়াম সেবন। পরিশেষে ভুলে যাবেন না যে প্রতি এক চা চামচ পরিমাণ সয়াসসে এক গ্রাম সোডিয়াম থাকে ।

রোনাল্ড রিগান যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি হবার আগে তার চিকিৎসক তাকে বলেছিলেন যে তিনি পনের বছর বেশী বাঁচতে পারবেন যদি খাবার টেবিলে লবণ খাওয়া বন্ধ করতে পারেন। “এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে আমি আমার লবণাক্ততা থেকে মুক্ত হয়েছি” এ কথাটি বলেছিলেন সেই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি রোনাল্ড রিগ্যান।

তো এতক্ষণে নিশ্চই বুঝতে পেরেছেন যে, উচ্চ রক্তচাপ কেন হয় এবং উচ্চ রক্তচাপ কমানোর উপায় কি কি? আর্টিকেলটি পড়ে যদি উপকৃত হন তবে শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন যাতে সবাই সচেতন থাকতে পারে।

You may also like

Leave a Comment